আরাকান আর্মীর সদস্য রেনাইজো এখন কোথায়?

প্রকাশ:| রবিবার, ৬ আগস্ট , ২০১৭ সময় ১০:৪৯ অপরাহ্ণ

॥ বান্দরবান প্রতিনিধি॥
কারাগার থেকে জামিনে বের হবার পর থেকেই খোঁজ মিলছেনা মিয়ানমারের স্বশস্ত্র বিদ্রোহী সংগঠন ‘আরাকান আর্মীর সদস্য’ ডা. রেনাইজো’র। পরিবারের স্বজনদের দাবী, রাঙ্গামাটি জেলা কারাগার থেকে বের হবার পর জেল গেইট থেকেই সাদা পোষাকধারী ব্যক্তিরা ডা.রেনাইজো’কে ধরে গাড়ীতে করে নিয়ে গেছে। আজ রোববার সকালে ডা.রেনাইজো’র সন্ধানের দাবীতে বান্দরবান প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে স্বজনরা এ অভিযোগ করেন।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন নিখোঁজ ডা. রেনাইজো’র ভাই উসুই মং মারমা। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন স্ত্রীর মামাত ভাই ক্যচিং প্রু মারমা এবং বড়বোন মায়েচিং মারমা। এছাড়াও বান্দরবানে কর্মরত বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ার গনমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
নিখোঁজ ডা. রেনাইজো’র ভাই উসুই মং মারমা বলেন, ২০১৫ সালের ১৪ অক্টোবর রাঙ্গামাটির রাজস্থলি থেকে মিয়ানমারের বিচ্ছিন্নতাবাদী সশস্ত্র সংগঠন ‘আরাকান আর্মীর সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছিল ডা. রেনাইজো’কে। তার বিরুদ্ধে সন্ত্রাস বিরোধী ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে ৩টি মামলা দায়ের করে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। গত ৫ জুন রাঙ্গামাটি কারাগার থেকে জামিনে মুক্ত হবার পর থেকেই ডা. রেনাইজো’র খোঁজ পাচ্ছে না তার পরিবার। তাদের অভিযোগ, জামিনে মুক্তি পাবার পর জেল গেইটের সামনে খাদ্য গুদামের কাছ থেকে একটি সাদা মাইক্রোবাসে তাকে তুলে নিয়ে যায় সাদা পোষাকধারী ব্যক্তিরা। একি সময় ডা. রেনাইজো’র সঙ্গে থাকা রাঙ্গামাটির স্থানীয় সাংবাদিক নির্মল বড়ুয়াকেও অপহরণ করা হয়েছিল। কিন্তু একদিন পর ৬ জুন নির্মল বড়ুয়াকে হবিগঞ্জ জেলার চুনারঘাট থেকে উদ্ধার করা গেলেও ডা. রেনাইজো’র এখনো নিখোঁজ। তার কোনো সন্ধান পাওয়া যাচ্ছেনা।
ডা. রেনাইজো’র স্ত্রীর মামাত ভাই ক্যচিং প্রু মারম বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকেও তাকে ডা. রেনাইজো’কে গ্রেফতারের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় গত ২২ জুন রাঙ্গামাটি থানায় একটি সাধারণ ডাইরিও করা হয়েছে। নিখোঁজ ডা. রেনাইজো’কে উদ্ধার করে পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তরের দাবী জানাচ্ছি সরকারের কাছে।