আরএন স্পিনিংয়ের রাইট শেয়ার

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর , ২০১৩ সময় ০২:১৪ অপরাহ্ণ

আরএন স্পিনিংয়ের রাইট শেয়ারে৪ সপ্তাহের মধ্যে এ রুলের জবাব
পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত বস্ত্রখাতের আরএন স্পিনিংয়ের রাইট শেয়ারের আকার কমানোর নির্দেশনার ব্যাখ্যা চেয়ে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) বিরুদ্ধে রুল জারি করেছেন উচ্চ আদালত। বিএসইসিকে আগামী ৪ সপ্তাহের মধ্যে এ রুলের জবাব দিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

গত ৭ অক্টোবর বিচারপতি কাজী রেজা-উল-হক এবং বিচারপতি এ বি এম আলতাফ হোসাইনের সমন্বয়ে গঠিত যৌথ বেঞ্চ এ রুল জারি করেন। একইসঙ্গে রাইট শেয়ারের আকার কমানো সংক্রান্ত বিএসইসির জারিকৃত নির্দেশনা আগামী ছয় মাসের জন্য স্থগিত রাখার আদেশ দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ওয়েবসাইট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এর আগে গত ১৪ জানুয়ারি আরএন স্পিনিংয়ের পরিচালকরা রাইট শেয়ারের জন্য নির্ধারিত চাঁদা দিতে ব্যর্থ হওয়ায় রাইট শেয়ারের আকার ২৭৮ কোটি টাকা থেকে কমিয়ে ১২০ কোটি টাকা নির্ধারণের জন্য একটি নিদের্শনা জারি করে বিএসইসি। কমিশনের ৪৬৪তম সভায় এ নির্দেশনা জারি করা হয়।

এর পরিপ্রেক্ষিতে ১৯৬৯ সালের সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন অধ্যাদেশ এর ২৬(২) উপ-ধারা অনুযায়ী বিএসইসির নির্দশনাটি পুর্নবিবেচনার জন্য আবেদন করা হয় কোম্পানির পক্ষ থেকে। পরবর্তীতে রাইট শেয়ারের আকার কমানোর নির্দেশনা বিএসইসির আইনবর্হিভুত সিদ্ধান্ত মনে করায় কোম্পানির পক্ষ থেকে গত ১০ মার্চ উচ্চ আদালতের রিট করা হয়।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ১০ জানুয়ারি কমিশনের ৪১৫তম সভায় আরএন স্পিনিংকে ১টি সাধারণ শেয়ারের বিপরীতে ১টি রাইট শেয়ার ছেড়ে মূলধন বাড়ানোর অনুমতি দেয়া হয়। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কোম্পানিটি ১৩ কোটি ৯১ লাখ ৪১ হাজার ২৩০টি সাধারণ শেয়ারের বিপরীতে রাইট শেয়ার ছেড়ে বাজার থেকে ২৭৮ কোটি ২৮ লাখ ২৪ হাজার ৬০০ টাকা উত্তোলন করার কথা ছিল। কিন্তু নির্ধারিত সময়ে এ কোম্পানির পরিচালকরা নিজ কোটায় রাইট শেয়ারের অর্থ জমা দিতে না পারায় বিএসইসির পক্ষ থেকে রাইটের আকার কমিয়ে ১২০ কোটি টাকা করতে বলা হয়।