`আমির হোসেন চট্টগ্রামে আওয়ামী রাজনীতির গোড়াপত্তনকারী’

প্রকাশ:| শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর , ২০১৫ সময় ০৮:৫৫ অপরাহ্ণ

Dobas
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য ও গণপরিষদের সদস্য সাবেক সংসদ আলহাজ্ব ইছহাক মিয়া বলেছেন, আমির হোসেন দোভাষ চট্টগ্রামে আওয়ামী রাজনীতির গোড়াপত্তন করছেন এবং আজিজ, জহুর, হান্নানের মত নেতা সৃষ্টি করে বাঙালির মুক্তি সংগ্রামকে এগিয়ে দিয়ে গেছেন।

তিনি আজ বিকেলে বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ট সহচর ও চট্টগ্রাম আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাকালীন সভাপতি জননেতা মরহুম আমির হোসেন দোভাষের ৪৫ তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে নগরীর একটি কমিউনিটি সেন্টারে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় মূখ্য আলোচকের ভাষণে তিনি এ কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, ৪৯ সালে আওয়ামী লীগ গঠিত হলে আমির হোসেন দোভাষ চট্টগ্রাম সাংগঠনিক দায়ত্বি পালন এবং ঘরে ঘরে গিয়ে দল গঠনের দাওয়াত পৌঁছে দিয়েছিলেন। ঐতিহ্যগতভাবে ধনী ও বনেদী মানুষটি সাধারণ মানুষের সাথে একাকার হয়ে রাজনীতির সাথে সমাজসেবাকে সম্পৃক্ত করেছিলেন। সভাপতির ভাষণে চট্টগ্রাম আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব এ.বি.এম মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেন, উত্তরাধিকার সূত্রে বিশাল স্থাবর-অস্থাবর সম্পদের অধিকারী আমির হোসেন দোভাষ ভোগী নয়, ত্যাগী ছিলেন। তাঁর রাজনীতি ছিল মানবসেবার মাধ্যম। আজ আমরা যারা রাজনীতি করি তাদেরকে মরহুম আমির হোসেন দোভাষের এই গুণটি অর্জন করতে।
তিনি আরো বলেন, ক্ষমতায় যাওয়ার চেয়ে ক্ষমতা ধরে রাখা কঠিন। কারণ, ক্ষমতা এমন একটি জিনিস তিল পরিমাণ ভূল তালে পরিণত হয় এবং টুনকো কারণে নিজেদের মধ্যে বিবাদ বিরোধ বাড়ে। এ থেকে আমাদেরকে সাবধান থাকতে হবে।

চট্টগ্রাম আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দীন বলেন, আমির হোসেন দোভাষ রাজনীতিতে এসেছিলেন দেশ প্রেম ও মানসেবার জন্য। তাঁর বিত্তের অভাব ছিল না। চিত্তের শুদ্ধতায় রাজনীতিকে হাতিয়া করে সেই বিত্তকে দ্বিগুণ করেননি বরৎ বিলিয়ে দিয়েছেন। তবে আজকে র প্রেক্ষাপট ভিন্ন। যথেস্ট প্রমাণ রয়েছে যে, বিত্ত-বৈভবের জন্য অনেকেই রাজনীতিকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছেন। এরা দল, দেশ ও জাতির জন্য ভয়ানক অভিশাপ, এই অভিশাপ থেকে অবশ্যই মুক্ত হতে হবে। চট্টগ্রাম আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিক আদনান এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব নঈম উদ্দিন চৌধুরী, এডভোকেট সুনীল কুমার সরকার, সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য আলহাজ্ব বদিউল আলম, শফিকুল ইসলাম ফারুক, এডভোকেট শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, চন্দন ধর, ইঞ্জিনিয়ার মানস রক্ষিত, কার্যনির্বাহী সদস্য নজরুল ইসলাম বাহাদুর, বখতিয়ার উদ্দিন খান, গৌরাঙ্গ চন্দ্র ঘোষ, অমল মিত্র, আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল নবী দোভাষ, আবুল কাশেম, আবুল হাশেম বাবুল, মোরশেদুল আলম, মো: সেলিম রেজা, আবদুল মালেক প্রমুখ। এর আগে সকালে বাংলাবাজারস্থ পারিবারিক কবরস্থানে মরহুম আমির হোসেন দোভাষের কবরে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে পুষ্পমাল্য অর্পণ শেষে মিলাদ ও বিশেষ মুনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।