আমার কাজে বিন্দুমাত্র দুর্নীতি পেলে মেয়র থাকবোনা

প্রকাশ:| শুক্রবার, ১ মে , ২০১৫ সময় ১১:১১ অপরাহ্ণ

দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষণা করে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেছেন, দুর্নীতি ও নাছির এক সঙ্গে চলতে পারে না।

শুক্রবার বিকেলে মে দিবস উপলক্ষে নগরীর লালদীঘির মাঠে জাতীয় শ্রমিক লীগ আয়োজিত শ্রমিক সমাবেশ ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ ঘোষণা দেন।

নাছির উদ্দিন বলেন, ‘শতভাগ দুর্নীতিমুক্ত সিটি কর্পোরেশন পরিচালনা করা হবে। নগরীর উন্নয়ন কাজে যদি বিন্দুমাত্র দুর্নীতির প্রমাণ পাওয়া যায় তবে আমি মেয়রের পদ থেকে সরে যাব। ’

নির্বাচনের পূর্বে জনগণকে দেওয়া প্রতিশ্রুতি অক্ষরে অক্ষরে পালন করবেন জানিয়ে আ জ ম নাছির বলেন, ‘প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে বাধা আসলে জনগণকে নিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিহত করব। নগরীর উন্নয়নে আমার কোন দুর্বলতা নেই। আমার উন্নয়ন কাজে দুর্নীতি ও স্বজনপ্রীতি বাধা সৃষ্টি করতে পারবে না। সকল বাধা অতিক্রম করে চট্টগ্রামের সকল সমস্যা আমি সমাধান করব ইনশাল্লাহ।’

আ জ ম নাছির বলেন, ‘আমার কাছে সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজদের কোন স্থান নেই। এ ব্যাপারে জিরো টলারেন্স দেখাব। আমি ছাত্র রাজনীতি থেকে কষ্টের মাধ্যমে তিলে তিলে নিজেকে গড়ে তুলে এ স্থানে এসে পৌঁছেছি। কোনদিন ধ্বংসাত্মক রাজনীতি করিনি। সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজ মুক্ত চট্টগ্রাম নগরী গড়ে তোলা হবে।’

নবনির্বাচিত মেয়র আ জ ম নাছির বলেন, ‘যখন সুযোগ পেয়েছি জনগণের কল্যাণে কাজ করেছি। আল্লাহ আমাকে সব দিয়েছেন, এখন জনগণকে কিছু দেওয়ার আছে। সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করতে চাই। প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতায় চট্টগ্রামকে স্বপ্নের মেগাসিটি বিনির্মাণে সকলে আমাকে সহযোগিতা করবেন।’

শ্রমিক জনতা তাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত উল্লেখ করে আ জ ম নাছির বলেন, শ্রমিকদের শ্রম ও ঘামে অর্থনীতি নির্ভর করে। কিন্তু তাদের ন্যায্য পাওনা ও মর্যাদা দেওয়া হয় না। তবে আমার কাছে শ্রমিক জনতা সকলেই সমান। শ্রমিকদের যৌক্তিক যেকোন দাবি ও অধিকার বাস্তবায়নে আমি তাদের পাশে থাকব।’
নাছির
জাতীয় শ্রমিক লীগের চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি বখতেয়ার উদ্দিন খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল আলম চৌধুরী, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন, চট্টগ্রাম-১১ আসনের সাংসদ এম এ লতিফ ও জাতীয় শ্রমিক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সফর আলী প্রমুখ।

এছাড়া অনুষ্ঠানে জাতীয় শ্রমিক লীগের পক্ষ থেকে নবনির্বাচিত মেয়র, কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলরদের সংবর্ধনা দেওয়া হয়।