আমাকে বাঁচাতে গিয়েই তাঁরা মারা গেছেন

প্রকাশ:| রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর , ২০১৩ সময় ১০:০৬ অপরাহ্ণ

‘আমাকে বাঁচাতে গিয়েই তাঁরা মারা গেছেন। জীবন দিয়ে তাঁরা আমাকে বাঁচিয়েছেন। এ জন্য তাঁদের ও nur-1তাঁদের পরিবারের কাছে আমি চিরঋণী।’ নীলফামারীতে সাংসদ ও নাট্যব্যক্তিত্ব আসাদুজ্জামান নূরের গাড়িবহরে গতকাল জামায়াত-শিবিরের হামলায় নিহত হন আওয়ামী লীগের চার নেতা-কর্মী। আজ রোববার সন্ধ্যায় তাঁদের জানাজায় এসব কথা বলতে বলতে কান্নায় ভেঙে পড়েন আসাদুজ্জামান নূর।

নীলফামারী শহরে জেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ের সামনে স্বাধীনতা স্মৃতি অম্লান চত্বরে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ প্রশাসক মমতাজুল হক জানান, রাতে টুপামারী গ্রামে দ্বিতীয় দফা জানাজা শেষে লাশগুলো তাঁদের পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে। জানাজায় সাংসদ আসাদুজ্জামান নূর, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন ও দলের নেতা-কর্মীরা অংশ নেন।

নীলফামারী-২ (সদর) আসনের সাংসদ আসাদুজ্জামান নূরের গাড়িবহরে গতকাল বিকেলে জামায়াত-শিবির হামলা চালালে পুলিশ ও আওয়ামী লীগের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে নিহত হন সদর উপজেলার টুপামারী ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি খোরশেদ চৌধুরী (৫৫), আওয়ামী লীগের কর্মী লেবু (৪০), যুবলীগের কর্মী ফরহাদ হোসেন (২৫) ও ছাত্রলীগের কর্মী মুরাদ হোসেন (২০)।

সেখানে প্রায় সোয়া ঘণ্টা অবরুদ্ধ থাকার পর সন্ধ্যায় সাংসদ আসাদুজ্জামান নূর পুলিশি পাহারায় তাঁর নীলফামারীর বাসভবনে পৌঁছান।


আরোও সংবাদ