আমরা পারি, নিজেরাই পারি: জয়

প্রকাশ:| শুক্রবার, ৩১ জুলাই , ২০১৫ সময় ০৬:৪৬ অপরাহ্ণ

প্রধানমন্ত্রীর তথ্য-প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় বলেছেন, লক্ষ্যের ছয় বছর আগে নিম্ন-মধ্যম আয়ের দেশের কাতারে উন্নীত হয়ে বাংলাদেশ বিশ্বকে দেখিয়ে দিয়েছে, এ দেশের মানুষ নিজেরাই নিজেদের এগিয়ে নিতে পারে।
জয়
শুক্রবার বিকালে রাজধানীর কেআইবি মিলনায়তনে ‘লেটস টক’ নামের এক অনুষ্ঠানে দুই শতাধিক তরুণের সামনে আসেন প্রধানমন্ত্রীর ছেলে জয়।
তিনি বলেন, “আমরা বিশ্ব ব্যাংকের পরিসংখ্যানের অপেক্ষায় ছিলাম। কিন্তু আমরা শুনেছিলাম যে, হ্যাঁ আমরা পরিণত হব। আগে থেকেই খবর পেয়েছি, আমাদের পরিসংখ্যানও সবদিক দিয়েই পৌঁছে গেছি। অফিশিয়াল ঘোষণাটা বাকি ছিল।
“আমাদের ওয়াদা ছিল, ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে আমরা একটি মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করব। নিম্ন-মধ্যম আয়ে পৌঁছেছি। তবে সেই ২০২১ সালের ছয় বছর আগে।”
চলতি মাসের শুরুতে বিশ্ব ব্যাংকের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, মাথাপিছু আয়ের ভিত্তিতে তাদের সূচকে বাংলাদেশ এক ধাপ এগিয়ে নিম্ন-মধ্য আয়ের দেশের কাতারে এসেছে।
শেখ হাসিনা নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকার ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত করার লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করলেও সেই লক্ষ্য অর্জিত হল ছয় বছর আগেই।
এ বিষয়টি নিয়েই ‘লেটস টক ইউথ সজীব ওয়াজেদ জয় অন বাংলাদেশ এচিভিং মিডল ইনকাম স্ট্যাটাস’ শীর্ষক এ আলোচনার আয়োজন করে সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরআই)।
জয় বলেন, “বাংলাদেশ বিশ্বকে দেখিয়ে দিয়েছে, আমরা পারি, নিজেরাই পারি; দেশবাসীকে এগিয়ে নিতে পারি।”
আওয়ামী লীগ সরকারের সময়ে নেওয়া বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বলেন, “আমরাও আশ্চর্য হয়েছি। এটা (ছয় বছর আগে এ অর্জনে) একটা চ্যালেঞ্জ ছিল। বিশ্বের সবচেয়ে দরিদ্র দেশ থেকে আজ আমরা নিম্ন-মধ্যম আয়ের দেশে।”
এ অর্জনের কৃতিত্ব আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনাকেই দেন তিনি।
জয় বলেন, “এ সব কিছুর পরিকল্পনা ছিল একজনের। গত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে জেলে বসেই তিনি সব কিছু প্ল্যান করেছিলেন। সব উনার পরিকল্পনা ছিল। সুযোগ পেয়ে ক্ষমতায় গিয়ে তিনি তা বাস্তবায়ন করেছেন। তিনি শেখ হাসিনা।”
বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের ওয়েবসাইটে এ অনুষ্ঠান সরাসরি দেখানো হয়।