আমনের ফলন ভালো হলেও নারাজ কৃষকরা

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ১ ডিসেম্বর , ২০১৫ সময় ০৯:২০ অপরাহ্ণ

মহা ধুমধামে আমন ধান কাটা-মাড়াই শুরুচলতি বছর যশোর জেলায় এক লাখ ২৯ হাজার ৫০০ হেক্টর জমিতে আমন আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরেছে কৃষি বিভাগ। আর উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয় ৫ লাখ ৫৬ হাজার ২০০ মেট্রিক টন ধান। বাজারে প্রতিমণ ধানের দাম ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা। কৃষক জানান এ দামে ধান বিক্রি করে উৎপাদন খরচও তুলতে পারছেনা তারা।

স্থানীয় কৃষকেরা জানান, একমণ ধান বাজারে বিক্রি হচ্ছে ৫০০ টাকা। আমাদের কৃষকের কোন খরচ বাঁচতেছে না। ধানের যে দাম তাতে আমাদের মতো গরীব চাষিরা বাঁচার কোন কায়দা নেই।

বাজার নিম্নমুখি হওয়ায় ধান কিনতে আগ্রহি নয় ব্যবসায়ীরাও। সামনে বোরো আবাদের যে অর্থের প্রয়োজন তাও যোগাতে পারছে না কৃষক। স্থানীয় কৃষকেরা জানান, সার তেল সবকিছু খরচ করে আমাদের লাভ নেই।

ধানের দাম বাড়ানোর পক্ষে স্থানীয় কৃষি বিভাগও। যশোর সদরের উপ-সহকারি কৃষি কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম বলেন, কষ্টার্জিত ফসলের দাম কৃষকেরা পাচ্ছে না। এবারে বাজারে ধানের যে দাম আছে সেই দামের তুলনায় আসলে ব্যয় সমান সমান দেখা যাচ্ছে।

সারের উচ্চমূল্য আসন্ন বোরোর আবাদ নিয়ে কৃষককে আরও চিন্তায় ফেলেছে।