আপনি সিলেকশনের এমপি, আমি সিলেকটেড এমপি

প্রকাশ:| রবিবার, ৩১ মে , ২০১৫ সময় ০৮:০০ অপরাহ্ণ

ঢাকা-১৪ আসনের সরকারদলীয় সংসদ সদস্য মো. আসলামুল হককে উদ্দেশ করে স্থানীয় সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য সাবিনা আক্তার তুহিন বলেছেন, ‘আপনি সিলেকশনের এমপি। আর আমি প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক সিলেকটেড এমপি। শুধু আপনি বললে হবে না। সবার কথা শুনতে হবে।’

রোববার ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) অঞ্চর-৪ এর আওতায় স্থানীয় সংসদ সদস্য ও ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের নিয়ে মেয়র আনিসুল হকের এক মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন। মতবিনিময় সভায় মেয়র আনিসুল হক কাউন্সিলরদের উদ্দেশ করে বলেন, ‘আমরা ফুটপাতসহ সব ধরনের দখল মুক্ত করতে চাই। আপনারা কীভাবে সহযোগিতা করবেন?’
আপনি সিলেকশনের এমপি, আমি সিলেকটেড এমপি
জবাবে স্থানীয় সংসদ সদস্য সাবিনা আক্তার তুহিন বলেন, ‘শুধু মতের বিরোধীদের দোকানপাট উচ্ছেদ করলে হবে না। উচ্ছেদ করলে সব অবৈধ দখলই উচ্ছেদ করতে হবে। শুধু যারা আমার মিছিলে যায় প্রতিহিংসা বশত তাদের দোকানপাট উচ্ছেদ করা হয়। বাকিদের উচ্ছেদ করা হয় না।’

তুহিন অভিযোগ করে বলেন, ‘এ মাস থেকে নতুন করে দখল শুরু হয়েছে। ওয়ার্ড কাউন্সিলর কাজী টিপু গিয়ে ফুটপাতের দোকানদারদের কাছ থেকে টাকা চান। টাকা না দিলে তাদেরকে উচ্ছেদের হুমকি দেন। উচ্ছেদে গেলে অনেকেই বলে আমার ভাই এমপি-মন্ত্রী। আমি দখল ছাড়বো না।’

তখন আনিসুল হক বলেন, ‘এ এলাকায় স্থানীয় কাউন্সিলর ছাড়া অন্য কারো কথা শোনা হবে না। একমাত্র প্রধানমন্ত্রী ছাড়া কোনো ফোন কাজে আসবে না।’

এসময় কাউন্সিলর কাজী টিপু মেয়রের কাছ থেকে জানতে চান ওয়ার্ডে তার ক্ষমতা কী? জবাবে সংসদ সদস্য আসলামুল হক বলেন, ‘তুমি একজন নির্বাচিত প্রতিনিধি। ওয়ার্ডের সব তুমিই দেখবা। এখন নির্বাচিত কাউন্সিলর, স্থানীয় সংসদ সদস্য এবং মেয়র- এই তিনজন ছাড়া কারো কথা শোনা যাবে না।’

আসলামের এমন বক্তব্যে তেলে-বেগুনে জ্বলে ওঠেন সংরক্ষিত আসনের এমপি শামীমা আফরোজ তুহিন। তিনি আঙ্গুল উঠিয়ে বলেন, ‘কেন আমাদেরকে অসম্মান করেন। আমাদের কথা শুনবেন না কেন। আপনি কিন্তু সিলেকশনের এমপি। ভোটে নির্বাচিত হননি। আর আমাকে স্বয়ং নেত্রী নিজেই নির্বাচিত করেছেন। আজ তাকে গিয়ে সব বলবো।’

প্রতিবাদে আসন থেকে উঠে যান সাংসদ আসলাম। তিনি বলেন, ‘আমি এখানে থাকবো না। আমি চলে যাচ্ছি।’

পরে মেয়র আনিসুল হকসহ কাউন্সিলররা তাকে অনুরোধ করলে আবার নিজের আসনে বসেন। এসময় তিনি উচ্চস্বরে বলেন, ‘আমার সাংবিধানিক অধিকার ক্ষুণ্ণ করা হচ্ছে।’

মেয়র আনিসুল হক সাবিনা আক্তার তুহিনকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘আপনারা আমাকে চিনেন না। আমি কিন্তু কাউকে ছাড় দেবো না।’

এসময় উপস্থিত ছিলেন- ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বিএম এনামুল হক, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল গাজী ফিরোজ রাহমান, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা একেএম মাসুদ আহসান, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা ক্যাপ্টেন বিপন কুমার সাহা প্রমুখ।