আনোয়ারা-কর্ণফুলীতে প্লাবিত অর্ধশতাধিক বসতঘর

প্রকাশ:| রবিবার, ২৩ জুলাই , ২০১৭ সময় ০৭:৫২ অপরাহ্ণ

ইমরান এমি, আনোয়ারা:

আনোয়ারা ও কর্ণফুলী উপজেলার অর্ধশতাধিক বিস্তীর্ণ এলাকা প্রবল বর্ষনে প্লাবিত হয়েছে। জলমগ্ন হয়ে পড়েছে দুই উপজেলার বিশটির অধিক গ্রাম।
সূত্র জানায়, রবিবারের টানা বর্ষণে আনোয়ারা উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের ফকিরহাট, ধলঘাট, বার আউলিয়া, জুঁইদন্ডী ইউনিয়নের পশ্চিম জুঁইদন্ডী, দক্ষিণ জুঁইদন্ডী, লামারবাজার ও গোদারগোড়া, বারখাইন ইউনিয়নের দক্ষিণ তৈলারদ্বীপ ও পূর্ব বারখাইন এবং বরুমচড়া গ্রামে পানি ওঠানামা করছে। এছাড়া; উপজেলার চাতরী ইউনিয়নের ডুমুরিয়া, রূদুরা, চাতরী, মহতরপাড়া, কৈনপুরা, কেঁয়াগড়, পরৈকোড়া ইউনিয়নের কৈখাইন, মাহাতা, ভিংরোল, পাটনীকোঠা, পরৈকোড়া, হাইলধর ইউনিয়নের খাসখামা ও আনোয়ারা সদরে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে।
অপরদিকে, কর্ণফুলী উপজেলার জুলধা ইউনিয়নের ডাঙ্গারচর, জুলধা, ইছানগর, চরলক্ষা এবং বড়উঠান ইউনিয়নের লিচুতলা ও জামতলা এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। জুলধা ইউনিয়নের গ্রামগুলোতে কর্ণফুলী নদীর পানি প্রবেশ বাঁধ টপকে।
এদিকে, রবিবার দুপুরে আনোয়ারা উপজেলার রায়পুরের ফকিরহাট, কোস্টগার্ড ও জুঁইদন্ডী এলাকার লামারবাজার এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে শঙ্খনদের পানি এলাকায় প্রবেশ করছে ব্যাপক হারে। কোন কোন স্থানে রাস্তার উপর হাটু সমান পানি দেখা গেছে।
এব্যাপারে কর্ণফুলী উপজেলার জুলধা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি নুরুল হক চৌধুরী বলেন, রবিবারে প্রবল বর্ষণে এলাকায় ভোগান্তির সৃষ্টি হয়েছে। গ্রামে কর্ণফুলী নদীর পানি প্রবেশ করেছে বেড়িবাঁধ টপকে।
রায়পুর ইউনিয়নের ফকিরহাট এলাকার বাসিন্দা শাহাবুদ্দিন বলেন, জোয়ারের পানি বাড়ায় পুরো গ্রাম তলিয়ে গেছে। এ নিয়ে আমরা আতংকে আছেন।
আনোয়ারা উপজেলা ভারপ্রাপ্ত প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আবুল হোসেন বলেন, উপজেলার জলাবদ্ধতার ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
জানতে চাইলে পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারী প্রকৌশলী কাইছার উদ্দিন বলেন, আনোয়ারা উপকূলের বিভিন্ন এলাকার খোলা বেড়িবাঁধ দিয়ে পানি প্রবেশ করেছে। কিছু কিছু স্থানে বেড়িবাঁধ নিচু হওয়ায় পানি উপচে পড়েছে বলে শুনেছি।
আনোয়ারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) গৌতম বাড়ৈ বলেন, টানা বর্ষণে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় জলাবদ্ধতার খবর আমরা পাচ্ছি। স্থানীয় চেয়ারম্যানদের কাছ থেকে তথ্য নিয়ে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরোও সংবাদ