আওয়ামী লীগ সরকার শিক্ষা বান্ধব সরকার-মোশাররফ

প্রকাশ:| শনিবার, ২৪ মে , ২০১৪ সময় ০৬:০৪ অপরাহ্ণ

প্রেস রিলিজ
মোশাররফগৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, আওয়ামী লীগ সরকার শিক্ষা বান্ধব সরকার। শিক্ষানীতিতে পরিবর্তন করে সরকার সুশিক্ষিত জাতি গঠন করছে। শিক্ষার হার বাড়ার সাথে সাথে দেশ উন্নতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। বর্তমানে মাথা পিছু আয় ১ হাজার ১৯০ ডলার।

শনিবার সকালে মোস্তফা-হাকিম বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের wek বছর পূর্তি, প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রী পূণর্মিলনী ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। এর আগে আমন্ত্রিত অতিথিরা কেক কেটে, পতাকা উত্তোলন ও জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন।
কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি দিদারুল আলম এমপিÕর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উত্তর কাট্টলী মোস্তফা-হাকিম বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ও সিটি মেয়র এম মনজুর আলম।

ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেন, মোস্তফা-হাকিম বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে ২০ বছরে যারা উচ্চ শিক্ষা অর্জন করেছে তাদের অনেকেই অভূত পূর্ব সাফল্য অর্জন করে নিজ নিজ ক্ষেত্রে সুপ্রতিষ্ঠিত।

তিনি বলেন, অতীতের চেয়ে বর্তমান সরকারের শাসন আমলে মেধার বিকাশ বেশি হচ্ছে। মেধা ও মননে শিক্ষিতরাই স্বপ্নের উন্নত বাংলাদেশ গড়ে তুলতে সক্ষম হবে।

মন্ত্রী বলেন, সরকার শিল্পায়নে ইকোনোমি জোন প্রতিষ্ঠা, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে চার লেইনে উন্নীতকরণ, পদ্মা সেতু নির্মাণে কার্যাদেশ প্রদান, উত্তরবঙ্গ ও দক্ষিণবঙ্গের মধ্যে সংযোগ স্থাপন, চট্টগ্রামে পল্লী বিদ্যুৎ খাতে ৮ হাজার কোটি টাকার বরাদ্দ প্রদান একটি ঐতিহাসিক সাফল্য। সময় মন্ত্রী শিক্ষা ক্ষেত্রে সিটি মেয়রের বিভিন্ন উদ্যোগের ভূঁয়সী প্রশংসা করেন।

সিটি মেয়র এম মনজুর আলম কলেজ প্রতিষ্ঠার জন্য জমিদান, কলেজ ও পাঠদানের অনুমোদনের জন্য তৎকালিন মন্ত্রী ও নগর বিএনপি’র সভাপতি আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মজিদকে সাধুবাদ জানান।

তিনি বলেন, কলেজের বহু মেধাবী ছাত্র-ছাত্রী সরকারের উচ্চ পদে, ব্যবসা বাণিজ্যে এবং দেশের সেবায় নিয়োজিত আছেন। প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীদের মহামিলনের মত দেশ পরিচালনায় সকল দলের মহামিলন হলে দেশ সামনের এগিয়ে যেত।

তিনি অধ্যক্ষ মরহুম এ এ রেজাউল করিম চৌধুরী, অধ্যক্ষ প্রফেসর ফজলুল কাদের চৌধুরী’র অবদান কৃতজ্ঞ চিত্তে স্মরণ করেন।

কলেজের সিনিয়র প্রভাষক কাজী মাহবুবুর রহমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থী কুয়েতুন্নেসা নার্গিসের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন কলেজের প্রতিষ্ঠাতা মো. আবু তাহের, মো. সরওয়ার আলম, বাবুল হক, সুলতান আহমদ চৌধুরী, ডা. সরওয়ার জাহান জুলি, নেছার আহমদ, অধ্যক্ষ মোহাম্মদ আলমগীর, কাউন্সিলর নিছার আহমদ মঞ্জু, নুরুল আলম ভুট্টো, মো. ফজলুল কাদের, মাহফুজুল হক চৌধুরী, মোহাম্মদ মোহসীন চৌধুরী, লায়লা নাজনীন, কাউন্সিলর নিছার উদ্দিন আহমেদ, নিয়াজ মোহাম্মদ খান।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মোস্তফা-হাকিম ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনের পরিচালক নিজামুল আলম, ফারুক আজম, সাইফুল আলম, সাহিদুল আলম, কর্পোরেশনের প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা অধ্যাপক মুহম্মদ শহীদুল্লাহ,আগ্রাবাদ মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ কৃষ্ণ কুমার দত্ত, বিজয় স্মরণী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর ।

দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের মধ্যে ছিল- প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রী পূণর্মিলনী ও কৃতি ছাত্র-ছাত্রীদের সংবর্ধনা, বর্ণাঢ্য র‌্যালী, রক্তদান ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। প্রাক্তন কৃতি ছাত্র-ছাত্রীদের হাতে উপহার তুলে দেন সাংসদ দিদারুল আলম ও কলেজ পরিচালনা কমিটির সদস্যরা। –