‘আইসিসি’র প্রতি খোলা চিঠি

প্রকাশ:| শনিবার, ২১ মার্চ , ২০১৫ সময় ০৪:১৯ অপরাহ্ণ

ড়ড়ড়ড়ড়ড় বিতর্কিত আম্পায়ারদের আজীবন বহিঃষ্কারের দাবি’

আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ-২০১৫ অষ্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ বনাম ভারত কোয়াটার-ফাইনাল ম্যাচে আম্পায়ারদের বিতর্কিত ও ভারতপ্রীতি সিন্ধান্তের প্রতিবাদে বিতর্কিত আম্পায়ারদের আজীবন বহিঃষ্কারের দাবি জানান বাংলাদেশ অনলাইন অ্যাক্টিভিষ্ট ফোরাম-বোয়াফ।

অদ্য সকাল সাড়ে দশটায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ‘আইসিসি’র প্রতি খোলা চিঠি ও বিতর্কিত আম্পায়ারদের আজীবন বহিঃষ্কারের দাবি’ নিয়ে বাংলাদেশ অনলাইন অ্যাক্টিভিষ্ট ফোরাম-বোয়াফ উক্ত মানববন্ধনের আয়োজন করে।

উক্ত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, জাতীয় গণতান্ত্রিক লীগের সভাপতি এম এম জলিল, কাজী আরেফ ফাউন্ডেশনের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী মাসুদ আহমেদ, সাংবাদিক ও কলামিষ্ট মানিক লাল ঘোষ, ন্যাপ ভাসানীর সভাপতি মোস্তাক আহমেদ ভাসানী, আয়োজক সংগঠনের সহ-সভাপতি এড. ইয়াছিন করিম, অনলাইন অ্যাক্টিভিষ্ট হক মোজাম্মেল, সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুল্লাহ মিছবাহ, মোস্তাফিজুর রহমান রাজীব।

সংগঠনের সভাপতি ব্লগার কবীর চৌধুরী তন্ময় আইসিসির প্রতি খোলা চিঠিতে বলেন- ‘প্রথমেই ঘৃণা আর ক্ষোভ প্রকাশ করছি। ধিক্কার আর প্রতিবাদ জানাচ্ছি টাকার কাছে আইসিসি’র নীতি ও আদর্শ বিক্রি করার কারনে। দুঃখ প্রকাশ করছি, আইসিসি’র কর্মকান্ডের প্রতি প্রতিবাদ করতে আমাদের মূল্যবান সময় নষ্ট করে মানববন্ধনে দাঁড়িয়েছি। আর সেই সাথে আমাদের সবার সন্দেহ এবং বিশ্ব ক্রিকেট ভক্তদের প্রশ্ন- এটা কি ‘ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল’ না-কি ‘ইন্ডিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল’?

আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ-২০১৫, অষ্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট গ্রাউন্ড মেলবোর্নে বাংলাদেশ বনাম ভারত কোয়াটার-ফাইনালের অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচটির অগ্রীম ভাগ্য নির্ণয়ক হতে দেখা যায় আম্পায়ারদের, যা বিশ্বের কোটি কোটি ক্রিকেট ভক্ত অবলোকন করেছে, মর্মাহত হয়েছে, ঘৃণা-ক্ষোভ প্রকাশ করেছে আর আইসিসি’র প্রতি সন্দেহ তৈরি হয়েছে যা ভবষ্যিতের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর।

তৃতীয় বিশ্বের আধুনিক সময়ে তথ্য-প্রযুক্তির কল্যাণে পুরো ক্রিকেট বিশ্ব দেখেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট টাইগারস অধিনায়ক মাশরাফির এলবিডব্লিউ’র আবেদন এবং পরে টিভি আম্পায়ারের কাছে তার এই আবেদনটির রিভিউ। কোটি কোটি ক্রিকেট ভক্ত অবলোকন করেছে টাইগারস ডিপেন্ডেবল ব্যাটসম্যান মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে অবৈধভাবে কিভাবে আউট করা হয়েছে। ক্রিকেটপ্রেমীরা অবাক হয়ে দেখেছে, বাংলাদেশ দলের নির্ভরযোগ্য বোলার ও ক্রিকেট বিশ্বকাপ’১৫ এর চমৎকার পারফরম্যান্স করা রুবেল হোসেনকে কিভাবে উকেট থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে।

আমরা মনেকরি, আম্পায়ারদে একের পর এক বিতর্কিত ও ভারতপ্রীতি সিদ্ধান্তের কারনে বিশ্ব ক্রিকেট ভক্তরা যেমন হতাশ হয়েছে, তার চেয়েও বেশী মর্মাহত ও আত্মবিশ্বাস হারিয়েছে ক্রিকেট টাইগারসরা।

আম্পায়ারগণ একদিকে যেমন ক্রিকেট টাইগারসদের ন্যাচারাল খেলা থেকে বঞ্চিত করেছে আবার অন্যদিকে বিশ্বের কোটি কোটি ক্রিকেটপ্রেমীদের রোমাঞ্চকর ও শৈল্পিক ক্রিকেট খেলাকে কলঙ্কিত করেছে।

বিশ্ব ক্রিকেট ভক্তদের পক্ষে বাংলাদেশ অনলাইন অ্যাক্টিভিষ্ট ফোরাম-বোয়াফ অর্থাৎ আমাদের দাবি- আইসিসি’কে তার নিরেপক্ষতার জায়গা থেকে বিশ্ব ক্রিকেট ও ক্রিকেট প্রেমীদের কথা চিন্তা করে ইন্ডিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল থেকে বেড়িয়ে আসতে হবে এবং সেই সাথে বিতর্কিত ও ভারতপ্রীতি সিন্ধান্তকারী আম্পায়ারদের আইসিসি’র সকল কর্মকান্ড থেকে আজীবনের জন্য বহিঃষ্কার করতে হবে।

উক্ত মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, বোয়াফ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শামীম এইচ চৌধুরী, ইমরান খান শ্রাবন, প্রচার সম্পাদক ব্লগার রফিকুল ইসলাম রাকিব, রায়হান আহমেদ, ডেবিট হাওলাদার, তুর্য, রাকিব সজল, সোহান, জুয়েল চক্রবর্তী, এস এম মোজাম্মেল, তোফায়েল আহমেদ প্রমুখ।