আইসিসির কাছে প্রতিবাদ জানাবে বিসিবি

প্রকাশ:| শুক্রবার, ২০ মার্চ , ২০১৫ সময় ০৯:৪৫ অপরাহ্ণ

মেলবোর্নের ২২ গজে বাজে আম্পায়ারিংয়ের শিকার বাংলাদেশ। ভারতের বিপক্ষে কোয়ার্টার ফাইনালে পক্ষপাতমূলক আম্পায়রিংয়ের প্রতিবাদে মুখর পুরো দেশ। আর এই বিষয়টি মেনে নিতে পারছেন না বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনও। পক্ষপাতদুষ্ট আম্পায়ারিংয়ের শিকার হওয়ায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলে (আইসিসি) আনুষ্ঠানিক প্রতিবাদ জানাবে বিসিবি।

ম্যাচের দুই অন ফিল্ড আম্পায়ার ইংল্যান্ডের ইয়ান গোল্ড ও পাকিস্তানের আলিম দারের বিতর্কিত সিদ্ধান্তে গোটা ম্যাচ জুড়েই ভুগেছে বাংলাদেশ। এমনকি তৃতীয় আম্পায়ার স্টিফেন ডেভিসও অবতীর্ণ হয়েছিলেন খলনায়কের ভূমিকায়। কম করে হলেও দুটি সিদ্ধান্ত গেছে মাশরাফি বাহিনীর বিপক্ষে। যার ফলাফল ১০৯ রানের বিশাল হারে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকেই বিদায় নিতে হয়েছে বাংলাদেশকে।

কোয়ার্টার ফাইনালের পরাজয়ে মুষড়ে পড়া ক্রিকেটারদের শুক্রবার মেলবোর্নে সংবর্ধনা দেয় প্রবাসী বাংলাদেশিরা। এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিসিবি সভাপতিও। ভারতের বিপক্ষে কোয়ার্টার-ফাইনালে বাংলাদেশ বিতর্কিত আম্পায়ারিংয়ের শিকার হওয়া প্রসঙ্গে নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘আম্পায়ারদের বিতর্কিত সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে বিসিবি কোনো রিভিউর আবেদন করবে না। এসব ক্ষেত্রে রিভিউ মূল্যহীন। কারণ, হয়ে যাওয়া ম্যাচটি তো আর নতুন করে হবে না।’

ভারতের কাছে বড় ব্যবধানে হারা সেই ম্যাচে রুবেল হোসেনর ‘নো’ বল আর মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের আউট নিয়ে যথেষ্ট বিতর্ক রয়েছে। এ বিষয়ে বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, বিতর্কিত আম্পায়ারিংয়ের বিরুদ্ধে আমরা আইসিসির কাছে আনুষ্ঠানিক প্রতিবাদ জানাবো। এ ব্যাপারে আমাদের মধ্যে কথা হয়েছে। বিসিবির পরবর্তী সভায় এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।’

রুবেলের ‘নো’ বল ও মাহমুদুল্লাহর আউটের ব্যাপারে আম্পায়ারের সমালোচনা করেন বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়করাও। ‘নো’ বলের ব্যাপারে তৃতীয় আম্পায়ারের সহায়তা না নেয়ায় মাঠের দুই আম্পায়ারের সমালোচনা করেন নাজমুল হাসানও, ‘এসব ব্যাপারে চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবার আগে মাঠের আম্পায়াররা টিভি (তৃতীয়) আম্পায়ারের সাহায্য নেন। কিন্তু বৃহস্পতিবার আম্পায়াররা তা করেছেন বলে মনে হয়নি।’

রুবেলের উইকেট ‘নো’ বলের কারণে বাতিল হওয়ার আগ পর্যন্ত ম্যাচ বাংলাদেশের অনুকূলে ছিল। কিন্তু আম্পায়ারের ভুলে আমাদের খেলোয়াড়রা স্তম্ভিত হয়ে পড়ে। এরপর আমরা খেলার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলি বলে জানান বিসিবি সভাপতি।