আইসক্রিম

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| শনিবার, ২০ জানুয়ারি , ২০১৮ সময় ০১:৪৩ পূর্বাহ্ণ

রেসিপি
ঠাণ্ডা হলে কি হয়েছে? আইসক্রিম চলে মানে দৌড়ায়। লোভনীয় খাবারের তালিকায় আইসক্রিম একটি জনপ্রিয় পছন্দ। যারা আইসক্রিম খেতে ভালবাসেন তাদের জন্য নিঃসন্দেহে এই আইসক্রিমগুলো হবে মজার এক অ্যাডভেঞ্চার।

স্বাদ, টেক্সচার, প্রক্রিয়া একই থাকলেও অনেকেই আইসক্রিম শিল্পকে উপাস্থাপন করেছে বিভিন্ন রুপে। যার ফলে সাধারণ বরফের গোলা আজ রুপ নিয়েছে ক্রিমি ফ্লেবারইড ঠাণ্ডা গোলায়। জেনে নিন এমনই কিছু অভিনব উদ্যোগ যা আইসক্রিমের জগতকে দিয়েছে এক নতুন অভিজ্ঞতা

স্প্যাগেটি
দারিও ফনটেনেলা নাকের এক আইসক্রিম রেস্তোরাঁর মালিক, ১৯৬০ সালে তৈরি করেছেন স্প্যাগেটি নামের আইসক্রিম। স্প্যাগেটি আইসক্রিম সাধারণত স্ট্রবেরি সস দিয়ে আবৃত এবং সাদা চকলেট বা নারকেল কুচি দিয়ে মোড়ানো থাকে, যা স্প্যাগেটিতে থাকা টমেটো সসে ঢাকা পনীরের অনুরূপ।

বিকল্প কোণ
বিক্রির সুবিধার্থে ১৯০৪ সালে আইসক্রিমের বিকল্প পাত্র কোণের জন্ম দেন আর্নেস্ট উ হাওমি। সেই আবিষ্কারের হাত ধরেই পেনসিলভানিয়ার “দ্যা কোণ গাইস কোম্পানি” নোন্তা, মিষ্টি, দারুচিনি ফ্লেবারড, চকলেট কুকি কোণ তৈরি করছে।

পাউডারইড আইসক্রিম
গতানুগতিক হিম আইসক্রিমের ধারণাকে চ্যালেঞ্জ করতে তৈরি করা হয় সেইজি ইয়ামামোতোর পাউডারইড আইসক্রিম। এই প্রক্রিয়ায় আইসক্রিমকে পাউডারের মত করে গুরো করে বাইরে বিভিন্ন ডিজাইনের শক্ত আবরণ দেয়া হয়। রঙ্গিন খোলসে ঢাকা এই গুরো আইসক্রিম আপনার মুখকে দিবে এক মোলায়েম স্বাদ।

স্টার ফ্রাইড আইসক্রিম
স্টার ফ্রাইড আইসক্রিমকে একটি ঠাণ্ডা ধাতু প্লেট রেখে তার উপর কাটা ফল দিয়ে রোল করে ফ্রিজ করা হয়। এই আইসক্রিমের বিশেষত্ব হল এর ভেতর আপনি এক সাথে নানা ফলের ফ্লেভার পাবেন। চমৎকার আকৃতির জন্য এই আইসক্রিমকে চকলেট সিগারের মত আপনি হাত দিয়েও খেতে পারবেন।

ডো-বল আইসক্রিম
সাধারণ আইসক্রিমকে বিস্কিটের গুড়ো দিয়ে কোট করে গরম তেলে ভেজে তৈরি করা হয়। মচমচে ভাজা বলের সাথে ঠাণ্ডা আইসক্রিমের ডো ভোলাবে আপনার মন।