অসম্প্রদায়িক চেতনার আজীবন সংগ্রামী কবি সুফিয়া কামাল

প্রকাশ:| রবিবার, ২০ নভেম্বর , ২০১৬ সময় ১০:২৫ অপরাহ্ণ

কবি সুফিয়া কামালের স্মরণ সভায় জেলা প্রশাসক সামসুল আরেফিন
%e0%a6%85%e0%a6%b8%e0%a6%ae%e0%a7%8d%e0%a6%aa%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a6%a6%e0%a6%be%e0%a7%9f%e0%a6%bf%e0%a6%95-%e0%a6%9a%e0%a7%87%e0%a6%a4%e0%a6%a8%e0%a6%be%e0%a6%b0-%e0%a6%86%e0%a6%9c%e0%a7%80%e0%a6%ac

দেশবরেণ্য বুদ্ধিজীবী কবি বেগম সুফিয়া কামালের ১৭তম মৃত্যুবার্ষিকী স্মরণ সভায় চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক সামসুল আরেফিন বলেছেন অসম্প্রদায়িক ও দেশপ্রেমিক চেতনার কবি ছিলেন বেগম সুফিয়া কামাল। নারী জাগরণের অগ্রদূত ও দেশের অনন্য আলোকবর্তিকা। তিনি বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধে তার অবদান অপরিসীম। শত শত কবিতা ও সাহিত্য চর্চার মধ্যদিয়ে বাংলা সাহিত্যকে তিনি সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে নিয়েছেন। যুদ্ধপরাধীদের বিচারের লক্ষ্যে তিনি আমৃত্যু সংগ্রাম করেছেন উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও চেতনাকে ধারণ করে কবি বেগম সুফিয়া কামাল সব সময় অসম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন দেখতেন। তিনি বলেন, এ মহুর্তে কবি বেগম সুফিয়া কামালে স্বপ্ন ও আদর্শকে বাস্তাবয়ন জরুরী। তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে কবি সুফিয়া কামালের সম্পর্ক ছিল খুব গভীর। দু’জনের চিন্তা চেতনা ছিল মহান। যে কারণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অপ্রতিরোধ্য গতিতে উন্নয়ন ও কর্মকান্ডে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ।
বঙ্গবন্ধু একাডেমী আয়োজিত গত ২০ নভেম্বর চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন সাংবাদিক ইউনিয়ন মিলনায়তনে কবি সুফিয়া কামালের স্মরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বঙ্গবন্ধু একাডেমী চট্টগ্রাম মহানগর আহ্বায়ক রেজাউল করিম খন্দকার বুলবুলের সভাপতিত্বে সদস্য সচিব সাংবাদিক আলী আহমেদ শাহীন ও লায়ন প্রশান্ত বড়–য়ার যৌথ সঞ্চালনায় এতে প্রধান বক্তা ছিলেন চসিক প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী। বিশেষ অতিথি ছিলেন নগর আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মশিউর রহমান চৌধুরী, উত্তর জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী দিলোয়ারা ইউসুফ, সাবেক কাউন্সিলর ও আওয়ামী লীগ নেত্রী হাসিনা জাফর, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট চট্টগ্রাম জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক দিদার আশরাফী।
সভায় বক্তারা, কবি বেগম সুফিয়া কামালের সাহিত্য পত্র ও কবিতা সংরক্ষণসহ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে কবি সুফিয়া কামালের নামে একটি হল নির্মাণের দাবি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন নারী সংগঠক রেবা বড়–য়া, ফাতেমা আক্তার, কাজী মুহাম্মদ আইয়ুব, রোজি চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা এস.এম. আবু তাহের, মুক্তিযোদ্ধা মিজানুর রহমান মিলন, আওয়ামী লীগ নেতা সামশুল হক, সংগঠক মুহাম্মদ এজাহারুল হক, বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগ চট্টগ্রাম মহানগর সদস্য এস.এম. সালাহউদ্দিন সামির, নারী সংগঠক সেলিনা শফি, জাহেদা আমিন চৌধুরী, আইভীন নাহার, হারুন উর রশিদ, অধ্যক্ষ শ্রীমৎ উপেক্ষা পাল ভিক্ষু, বাবুল ঘোষ বাবুন, কবি নুরুন নাহার, ইউনুচ মিয়া, মিসেস আকলিমা বেগম, সেলিম নুর, সৈয়দ জাহেদ হোসেন, রবিউল হাসান টিটু, শাহাদাত হোসেন স্বপন, আসিফ ইকবাল, তারা বানু, হাসান মুরাদ, জান্নাতুল ফেরদৌস রুবি, শারমীন আক্তার, মোখলেছুর রহমান, আমিনুল ইসলাম, রাজিব চক্রবর্ত্তী, বিপ্লব দাশ গুপ্ত, নাজমুল প্রমুখ।