অবৈধ সরকারের পতনের দিন ঘনিয়ে এসেছে

প্রকাশ:| রবিবার, ১৩ জুলাই , ২০১৪ সময় ১১:২৩ অপরাহ্ণ

অবৈধ সরকারের পতনের দিন ঘনিয়ে এসেছেশেখ হাসিনার অবৈধ সরকারের পতনের দিন ঘনিয়ে এসেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক মন্ত্রী এম মোরশেদ খান।

রোববার চট্টগ্রাম উত্তর জেলা বিএনপি আয়োজিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মোরশেদ খান বলেন, ইতিহাস পর্যালোচনা করে দেখা যায়, পেশী শক্তির জোরে কেউ ক্ষমতা চিরস্থায়ী করতে পারেনি। বাংলাদেশেও এর ব্যতিক্রম হবে না। অবৈধ সরকার পেশী শক্তির জোরে বেশি দিন টিকে থাকতে পারবে না।

তিনি বলেন, ঈদের পর দেশনেত্রী খালেদা জিয়া সরকার পতনের ডাক দিয়েছেন, তাই সব বিভেদ ভুলে গিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলন সংগ্রাম গড়ে তুলতে হবে এই আমাদেরই।

অতীতে চট্টগ্রাম থেকে সব গণতান্ত্রিক আন্দোলনের সূচনা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, চট্টগ্রাম থেকেই এ সরকারের পতন ঘটানো হবে।

এ সময় মহানগর বিএনপির সভাপতি আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, বিএনপিসহ ১৯ দলীয় জোট আন্দোলন শুরু করলে সরকার মামলা দিয়ে বিএনপি নেতা কর্মীদের দমিয়ে রাখার চেষ্টা করে। মামলা-হামলাকে বিএনপি নেতাকর্মীরা ভয় করে না।

ঈদের পর দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া যে আন্দোলন রূপরেখা দিবেন তা বিএনপিসহ সর্বস্তরের জনগণ রাজপথে থেকে এর দাঁত ভাঙ্গা জবাব দেবে।

আওয়ামী লীগ সরকারকে ‘জালিম’ সরকার আখ্যা দিয়ে বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন বলেন, জালিমের কাছে এদেশের জনগণ নিরাপদ নয়। আন্দোলন সংগ্রাম ছাড়া কোনো কিছু আদায় সম্ভব নয়। তাই এ সরকারের পতনের জন্য গণতান্ত্রিক আন্দোলনের বিকল্প নেই।

সাবেক হুইপ সৈয়দ ওয়াহিদুল আলম বলেন, ভোটারবিহীন নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় এসে অবৈধভাবে দেশ পরিচালনা করছে এই সরকার। এ সরকার জনগণের সরকার নয়। জনগণের কল্যাণে তাদের কোনো সম্পৃক্ততা নেই। তারা দেশকে বাকশালী কায়দায় পরিচালনা করে বিরোধী দলের ওপর নির্যাতন চালিয়ে ক্ষমতাকে চিরস্থায়ী করতে চায়। কিন্তু তাদের সে স্বপ্ন পূরণ হবে না।

সভাপতির বক্তব্যে উত্তর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আসলাম চৌধুরী বলেন, উত্তর জেলা বিএনপিতে কোনো বিভেদ নেই। পূর্বের মত উত্তর জেলার সাতটি উপজেলায় এ সরকারের বিরুদ্ধে গণ আনন্দোলন গড়ে তুলে সরকারকে নির্বাচন দিতে বাধ্য করা হবে।

উত্তর জেলা বিএনপির সদস্য সচিব কাজী আবদুল্লাহ আল হাসানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত মাহফিলে সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মঞ্জুরুল আলম, মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেন, মহানগর বিএনপিরসহ সভাপতি আবু সুফিয়ান, উত্তর জেলা বিএনপির সদস্য নুর মোহাম্মদ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।