অপহৃত নেতার মুক্তির দাবীতে বান্দরবানে আ’লীগের মিছিল-সমাবেশ

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ২ আগস্ট , ২০১৬ সময় ০৮:২০ অপরাহ্ণ

বিক্ষোভ মিছিল সমাবেশবান্দরবান প্রতিনিধি ॥
বান্দরবানে অপহৃত নেতার মুক্তি এবং অপহরণকারীদের গ্রেফতারের দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ করেছে আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীরা। অপহরণের ৫১ দিন পর আওয়ামীলীগ নেতা মংপু মারমার খোঁজ না পাওয়ায় আজ মঙ্গলবার সংগঠনের নেতাকর্মীরা বান্দরবান বঙ্গবন্ধু মুক্তমঞ্চে এ কর্মসূচী পালন করেন।
জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আব্দুর রহিম চৌধুরীর সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি একেএম জাহাঙ্গীর, আওয়ামীলীগের পৌরশাখা কমিটির সভাপতি অমল কান্তি দাস, সাধারণ সম্পাদক শামসুল ইসলাম, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি কাওছার সোহাগ’সহ সংগঠনের নেতাকর্মীরা। তারআগে দলীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে জেলা আওয়ামীলীগ’সহ সহযোগী সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরা অপহরণকারীদের গ্রেফতার এবং অপহৃত আওয়ামীলীগ নেতা মংপু মারমা’র মুক্তির দাবীতে শহরে বিক্ষোভ মিছিল করেছে। মিছিলটি শহর প্রদক্ষিন করে মুক্তমঞ্চে গিয়ে শেষ হয়।
সেখানে সমাবেশে জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি একেএম জাহাঙ্গীর বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে সাংগঠনিকভাবে আওয়ামীলীগের রাজনীতি দূর্বল করার জন্য আওয়ামীলীগ নেতা মংপু মারমা’কে অপহরণ করা হয়েছে। পাহাড়ে জনসংহতি সমিতির সন্ত্রাসীদের ভয়ে সাধারণ মানুষরা গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছে। সদ্য ইউপি নির্বাচনে প্রভাব বিস্তার করতে না পেরে চাঁদাবাজির টাকায় জেএসএস সন্ত্রাসীরা অবৈধ অস্ত্রের মওজুদ বাড়াচ্ছে আগামী সংসদ নির্বাচনে প্রভাব বিস্তারের জন্য।
আওয়ামীলীগনেতা আব্দুর রহিম চৌধুরী বলেন, অপহরণের ৫১ দিনেও অপহৃত আওয়ামীলীগ নেতা মংপু মারমার কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে পার্বত্য চট্টগ্রামে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী জোরালো অভিযান পরিচালনা করা দরকার।
প্রসঙ্গত: সদ্য সমাপ্ত ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গত ১৩ জুন ‘রাতে জেলার জামছড়ি পাড়া থেকে বান্দরবান সদর উপজেলা আওয়ামীগের যুগ্ন সস্পাদক ও সাবেক ইউপি সদস্য মংপু মারমা’কে অস্ত্রের মুখে অপহরণ করে নিয়ে গেছে জনসংহতি সমিতির অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনায় অপহৃতের মেয়ে জামাতা হ্লামংচিং মারমা বাদী হয়ে জেএসএস’র শীর্ষ নেতাদের নাম’সহ ৩৮ জনের বিরুদ্ধে সদর থানায় অপহরণ মামলা দায়ের করেছেন।