অপর্ণাচরণ স্কুল ও কলেজ এক সময় বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত হবে

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ২৩ সেপ্টেম্বর , ২০১৪ সময় ০৯:৪৮ অপরাহ্ণ

অপর্ণাচরণ সিটি কর্পোরেশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের মেধা, সাহিত্য ও খেলাধুলার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে সিটি মেয়র

অপর্ণাচরণ স্কুল ও কলেজ এক সময় বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত হবেচট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব মোহাম্মদ মনজুর আলম বলেছেন, অপর্ণাচরণ স্কুল ও কলেজ এক সময় বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত হবে। তিনি বলেন, শিক্ষা বিস্তার ও ঘরে ঘরে আলোকিত মানুষ গড়ার প্রত্যয়ে মরহুম নুর আহমদ চেয়ারম্যান অবৈতনিক শিক্ষা চালু করেন। তারই ধারাবাহিকতায় চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজ, উচ্চ বিদ্যালয়, প্রাথমিক বিদ্যালয়, কিন্ডার গার্টেন পরিচালনা করছে। মেয়র বলেন, বাঙালি গর্বিত জাতি। বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশ আজ সম্মানের আসনে অধিষ্ঠিত। মেয়র ছাত্রীদের মেধা ও মননে উৎকর্ষতা অর্জন, সুশিক্ষা গ্রহণ, সৎ ও বিনয়ী হওয়ার পরামর্শ দেন। তিনি ছাত্রীদের নিজ নিজ পরিবার ও প্রতিবেশীদের আবর্জনা ব্যবস্থাপনায় সচেতন করার দায়িত্ব গ্রহণের আহবান জানান। তিনি বলেন, আবর্জনা ডাস্টবিনে ও কন্টেইনারে ফেলা, নালা-নর্দমায় না ফেলা এবং পরিবেশ সুরক্ষায় ছাত্র-ছাত্রীদেরকে প্রচার প্রচারণায় সম্পৃক্ত হওয়ার পরামর্শ দেন। ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৪খ্রি. মঙ্গলবার সকালে নগরীর কে সি দে রোডস্থ মুসলিম ইনস্টিটিউট হলে অপর্নাচরন সিটি কর্পোরেশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের মেধা, সাহিত্য ও খেলাধুলার বিভিন্ন বিষয়ে অনুষ্ঠিত পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে মেয়র এ সব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা কমিটির সদস্য ও কাউন্সিলর এম.এ মালেক। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর মিসেস রেহেনা বেগম রানু, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আলী আহমেদ, সচিব রশিদ আহমদ, চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ড কলেজ পরিদর্শক মি. সুমন বড়–য়া। বার্ষিক প্রতিবেদন পেশ করেন প্রতিষ্ঠানের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মমতা বেগম। স্বাগত বক্তব্য রাখেন সহকারী প্রধান শিক্ষিকা সেলিনা খানম। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন, গীতা ও ত্রিপিটক থেকে পাঠ করেন শিক্ষার্থীরা। প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথিদের ক্রেস্ট উপহার দেন অধ্যক্ষা মমতা বেগম। অতিথিদের ফুলেল শুভেচ্ছায় বরণ করেন শিক্ষার্থীরা। পরে মেয়র মেধা, সাহিত্য ও খেলাধুলায় বিভিন্ন ইভেন্টে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন এবং মেয়র ‘পরাগ’ নামে একটি স্মরণিকার মোড়ক উন্মোচন করেন।


আরোও সংবাদ